চকরিয়ায় বাস-মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ৪

ptvinternational news desk:

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলায় একটি যাত্রীবাহি বাসের সঙ্গে দুটি মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে চারজন নিহত হয়েছে। এ সময় আহত হয়েছে আরও চারজন। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৬টার দিকে কক্সবাজার-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপজেলার উত্তর হারবাংয়ের ইছাছড়ি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

আহতদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। নিহতরা হলেন- উখিয়া উপজেলার রাজা পালং ইউনিয়নের হাতিরমুরা এলাকার বাদশা মিয়ার ছেলে আলী আকবর (১৮), মীর আহমদের ছেলে সাহাবউদ্দিন (১৮), গফুর মিয়ার ছেলে হারুনুর রশিদ (১৬) ও রামু উপজেলা উত্তর খুনিয়া পালং এলাকার সামশুল আলম চৌকিদারের ছেলে নোয়া চালক জয়নাল আবেদীন (৩০)। আহতরা হলেন- উখিয়া উপজেলার রাজা পালং ইউনিয়নের হাতিরমুরা এলাকার সালাহ উদ্দিন (৩০), নুরুল ইসলাম (২২), গফুর আলম (২৫) ও নুরুল ইসলাম (১৮)। প্রত্যক্ষদর্শী ও হাইওয়ে পুলিশ জানায়, শনিবার সকালে উখিয়া থেকে দুটি মাইক্রোবাস চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। এর মধ্যে একটি গাড়ি বান্দরবানে পিকনিকে যাচ্ছিল এবং অপরটি চট্টগ্রাম বিমানবন্দরে যাচ্ছিল। এ সময় মাইক্রোবাস দুটি চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের হারবাং ইটাছড়ি এলাকায় পৌঁছলে কক্সবাজারগামী শ্যামলী পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় ঘটনাস্থলে চালকসহ তিনজন নিহত হন। পরে স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহত পাঁচজনকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে আরও একজন মারা যায়। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী জানান, বাসের চালক পলাতক রয়েছে। দুর্ঘটনাকবলিত বাস ও মাইক্রো দুটি জব্দ করা হয়েছে। চিরিঙ্গা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির এসআই নাসির আহমেদ বলেন, নিহত চারজনের লাশ ফাঁড়িতে রয়েছে। তাদের আত্মীয়স্বজনকে খবর দেওয়া হয়েছে। পরিবারের সদস্যরা আসলে লাশ হস্তান্তর করা হবে।