ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় বাংলাদেশ এসোসিয়েশন লা স্পেসিয়া ইতালির আয়োজনে উদযাপিত হলো বাংলার মিলন মেলা ১৪২৬

রিপোর্ট – ফেরদৌসী আক্তার পলি , ইতালি info-0039.3273353075


বাংলা আমার প্রাণ ,সোনার বাংলাকে ভালোবেসে দেশ থেকে দূরে ।প্রবাসের মাটিতে নিজ দেশের কৃষ্টি কালচারকে তুলে ধরার লক্ষেই লা স্পেসিয়া বাংলাদেশ এসোসিয়েশন রবিবার ইতালির লা স্পেসিয়া শহরের স্থানীয় পিয়াজ্জাতে বর্ণাঢ্য আয়োজনে উৎযাপন করলো বাংলার মিলন মেলা ১৪২৬। দুপুর ২ টা থেকে রাত ওবধী এই আয়োজন চলে। বাংলার মিলন মেলা অনুষ্ঠানটির শুভ উদ্বোধন ঘোষণা করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি লা স্পেসিয়ার মেয়র পিয়ের লুইজি পেরাক্কিনি ,বিশেষ অতিথি হিসেবে এ সময় উপস্থিত ছিলেন সজীব সরকার প্রোপাইটর জি এস পেইন্টিং এস আর এল । জাতীয় সংগীত পরিবেশন এর মধ্য দিয়ে বাংলার মিলন মেলা অনুষ্ঠানের সূচনা হয়। প্রথম পর্বে ছিল ফুলেল শুভেচ্ছা ও এক সংক্ষিপ্ত শুভেচ্ছা বিনিময় সভা। ,বাংলাদেশ এসোসিয়েশন লা স্পেসিয়ার সভাপতি আবুল কালাম এর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান এর পরিচালনায় এ সময় শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন সাংগঠনিক সম্পাদক মানিক সাইফুল ,সিনিয়র সহ সভাপতি মোহাম্মদ জালাল উদ্দিন ,কোষাদক্ষয আনোয়ার হোসাইন যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হোসাইন কবির মামুন ও শাহীন আলম ,সহ সভাপতি আলী হোসাইন ,আইন বিষয়ক সম্পাদক কামরুল হাসান ,প্রচার সম্পাদক বিল্লাল হোসেন ,সম্পাদক উমর ফারুক ,সদস্য কামরুন নাহার সাথী রোমন সহ আরো অনেকে।

বক্তারা বলেন বাংলাদেশ এসোসিয়েশন দেশে ও প্রবাসে সামাজিক অর্থনৈতিক কল্লানে সর্বদা বদ্ধপরিকর। ইতালির বিভিন্ন শহর গুলো থেকে ও প্রবাসী বাংলাদেশিরা পরিবার পরিজন নিয়ে স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে বাংলার মিলন মেলায় অংশগ্রহণ করে ,অনুষ্ঠানটি সার্থক করে তুলতে সহযোগিতা করেন ব্রেসিয়ার কাউন্সিলর নুরুল হক ,জেনেভা থেকে জলিল খন্দকার ,লিভর্ন থেকে মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম প্রমুখ ।

দ্বিতীয় পর্বে ছিল এক মনোযুগ্ধকর সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা। লন্ডন এর জনপ্রিয় শিল্পী রওশন আরা মনি ও রাদিয়া গুলজান সহ এতে গান পরিবেশন করে ইতালির লা স্পেসিয়ার স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ ছাড়াও ইতালির রোম ,ভেনিস ,মিলান ,বোলোনিয়ার শিল্পীবৃন্দ। গানের মূর্ছনায় রাত পর্যন্ত দর্শক দারুন উপভোগ করে অনুষ্ঠানটি ,সবশেষে আকর্ষণীয় রেফেল ড্র এর বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেয়া হয় বাংলাদেশ এসোসিয়েশন লা স্পেসিয়ার পক্ষ থেকে। এবং আয়োজক মন্ডলী আগামীতে আরো বরো পরিসরে বাংলার মিলন মেলা করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।