“অভিনন্দন”কুমিল্লার কৃতি সন্তান মোহাম্মদ আলী লাল্লিং

রিপোর্ট- ফেরদৌসি আক্তার পলি

ডক্টরেট ডিগ্রী অর্জন করলেন কুমিল্লার কৃতি সন্তান মোহাম্মদ আলী লাল্লিং। তিনি যুক্তরাজ্যের ‘ইউনিভার্সিটি অফ দি ওয়েস্ট অফ স্কটল্যান্ড’ থেকে সফলতার সাথে পিএইচডি সম্পন্ন শেষে, গত ০৭/১১/২০১৯ তারিখে এক আড়ম্বরপূর্ণ সমাবর্তন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে “ ডক্টর অফ বিজনেস এডমিনিস্ট্রেশন” উপাধিতে ভূষিত হন। তার গবেষণার বিষয় ছিল “বাংলাদেশের গার্মেন্টস শিল্পে কর্পোরেট গোষ্ঠীর সামাজিক দায়িত্ব বণ্টন ও পালনের অগ্রগতি ও উন্নতি”।

ডঃ মোহাম্মদ আলী লাল্লিং এর বর্ণাঢ্য শিক্ষাজীবন কেটেছে দেশে ও বিদেশে। তার প্রাইমারি শিক্ষা অর্জন কুমিল্লা মডার্ন স্কুল থেকে, মাধ্যমিক শিক্ষা সম্পন্ন কুমিল্লা জিলা স্কুল থেকে এবং উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অর্জন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া গর্ভমেন্ট কলেজ থেকে। এরপর তিনি “ব্যাচেলর অফ ল উইদ অনার্স ” ডিগ্রী অর্জন করেন ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে, একই সাথে ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন ইন্টারন্যাশনাল প্রোগ্রাম থেকে সম্পন্ন করেন ডিপ্লোমা ইন ল’ ডিগ্রী । ২০০৯ সালে পাড়ি জমান যুক্তরাজ্যে এবং সেখানে ডি মন্টফোর্ট ইউনিভার্সিটি লেস্টার থেকে এল.এল.বি. এবং এল.এল.এম. (ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ল’) ডিগ্রী অর্জন করেন । ব্রিটেনে পড়াশোনার পাশাপাশি তিনি ২০১৩ সাল থেকে লেস্টার লেবার পার্টির অংশ হয়ে বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রমে একনিষ্ঠ ভাবে জড়িত আছেন । এছাড়াও তিনি, লেস্টার বাঙ্গালী কমিউনিটির ভিসা সক্রান্ত জটিলতা ও সরকারি সুবিধা বঞ্চিতদের কল্যাণে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। বর্তমানে স্বনামধন্য আইনী প্রতিষ্ঠান ‘দি ল স্কয়ার’ একজন আইনী সহযোগী হিসেবে নিয়োজিত আছেন।
তাকে পথ চলায় মানসিকভাবে উৎসাহ উদ্দীপনা দিয়েছেন কুমিল্লার আরো একজন সনামধন্য ব্যক্তিত্ব সৈয়দ মহসিন মিলন যিনি ইতালির মিলান কুমিল্লা সমিতির প্রতিষ্ঠাতা.বাংলাদেশ সমিতির সভাপতি ও মিলান আওয়ামীগ এর সভাপতি ,এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানে এই সনামধন্য দুই ব্যক্তিকে একত্রে দেখতে পেয়ে প্রবাসী বাংলাদেশিরা তাদের অনুভূতিতে উচ্ছাস প্রকাশ করেছেন ,
ডঃ মোহাম্মদ আলী লাল্লিং এর পৈত্রিক নিবাস কুমিল্লার হালিমানগর (বড় বাড়ি), বলরামপুর, কোতয়ালীতে । তিনি কুমিল্লার সুপরিচিত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আলম কন্সট্রাকসন এর স্বত্বাধিকারী মোঃ নুরুল আলম ও জোসনা আক্তার এর একমাত্র পুত্র সন্তান। তার চার বোন রয়েছে। বড় বোন আইরিন আক্তার (রাখি) ও ছোট বোন শারমিন আক্তার (সাথী) স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেছেন এবং তার কনিষ্ঠ দুই বোন কামরুন নাহার বীথি ও সাইফুন নাহার দিথি মেডিসিন ও ফার্মাসী বিষয় নিয়ে বর্তমানে অধ্যয়ন করছেন। ডঃ মোহাম্মদ আলী লাল্লিং এর স্ত্রী জান্নাতুল ফেরদৌস একজন প্রোকৌশলী ( তথ্য ও প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ ) । ব্যক্তিগত জীবনে তার রয়েছে এক পুত্র সন্তান – জাকোওয়ান জাফির আলী।

ডঃ মোহাম্মদ আলী লাল্লিং তার গবেষণালব্ধ জ্ঞানের মাধ্যমে বাংলাদেশের গার্মেন্টস শিল্পের অগ্রগতি, গার্মেন্টস শ্রমিকদের অধিকার ও নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ এবং গার্মেন্টস শিল্পে কর্পোরেট শিল্পগোষ্ঠীর ভূমিকা জোরদার করনে, শিক্ষাগত ও চর্চ্চাগত ক্ষেত্রে নতুন মাত্রা যোগ করতে দৃঢ় প্রত্যয়ী।